প্রশ্নোত্তরে রমযান ও ঈদ অধ্যাপক মোঃ নূরুল ইসলাম ২৭ টি অধ্যায় ২৫৫ টি অনুচ্ছেদ সম্পূর্ণ বইটি একসাথে পড়তে
প্রশ্নোত্তরে রমযান ও ঈদ অধ্যাপক মোঃ নূরুল ইসলাম ২৭ টি অধ্যায় ২৫৫ টি অনুচ্ছেদ সম্পূর্ণ বইটি একসাথে পড়তে
অধ্যায় ও অনুচ্ছেদ তালিকা
সিয়াম : অর্থ ও হুকুম অনুচ্ছেদ ৪ টি সিয়ামের শাব্দিক অর্থ কি? রমযান মাসের সিয়ামের হুকুম কি? এটা কোন হিজরী সালে ফরয হয়েছে? সিয়াম ফরয হওয়ার দলীল জানতে চাই। রমযান মাসের ফযীলত অনুচ্ছেদ ১ টি রমযান মাসের ফযীলত ও মর্যাদা সম্পর্কে জানতে চাই। সিয়াম পালনের ফযীলত অনুচ্ছেদ ৪ টি সিয়াম পালনকারীকে আল্লাহ কী কী পুরস্কার দেবেন? কী ধরনের শর্ত পূরণ সাপেক্ষে উপরে বর্ণিত অফুরন্ত ফযীলত ও সওয়াব হাসিল করা যাবে? কোন ধরনের পাপ করলে একজন মুসলিম ইসলাম থেকে বহিস্কৃত হয়ে যায়? একজন মুসলমান হয়ে যায় অমুসলমান- এ বিষয়ে জানতে চাই। জেনে না জেনে বা ভুলে উপরে বর্ণিত কোন এক বা একাধিক পাপ যদি কেউ করে ফেলে তাহলে এ থেকে শুধরানোর উপায় কি? সিয়ামের শিক্ষা ও উপকারিতা অনুচ্ছেদ ১ টি সিয়ামের মধ্যে মানুষের জীবনে কী কী উপকার রয়েছে? সিয়াম ত্যাগকারীর শাস্তি অনুচ্ছেদ ১ টি যারা বিনা উযরে সিয়াম ভঙ্গ করে তাদের শাস্তি কী হবে? চাঁদ দেখা অনুচ্ছেদ ১২ টি কিসের ভিত্তিতে সিয়াম পালন শুরু করতে হয়? কমপক্ষে কতজন লোকে চাঁদ দেখলে এ সাক্ষী গ্রহণযোগ্য হবে? চাঁদ দেখার ক্ষেত্রে সাক্ষীর কি ধরণের গুণাবলী থাকা দরকার? আকাশ মেঘলা হলে বা অন্য কোন কারণে চাঁদ দেখা না গেলে কি করব? পঞ্জিকা বা ক্যালেন্ডারের হিসাব অনুযায়ী রোযা রাখা যাবে কি? বিভিন্ন কারণে চাঁদ দেখতে না পারলেও রমযান হয়তো শুরু হয়ে গেছে এমন সন্দেহ করে রোযা রাখা শুরু করা যাবে কি? অধিক পরহেযগারী কাজ মনে করে যদি কেউ দু’ একদিন আগে থেকেই রোযা পালন শুরু করে তাহলে কি সওয়াব হবে? যে ব্যক্তি শাবান মাসে আগে থেকেই নফল রোযা রাখার অভ্যস্ত সে কি রমযান শুরু হওয়ায় আগের দু’ একদিন নফল রোযা রাখতে পারবে? চাঁদ দেখার বিষয়টি নিশ্চিত হতে না পারায় কেউ যদি এমনভাবে নিয়ত করে যে, যদি চাঁদ উঠে থাকে তাহলে এটা আমার ফরজ রোযা আর যদি না উঠে থাকে তাহলে হবে নফল রোযা এরূপ দোদুল্যমান নিয়ত করা কি জায়েয হবে? কেউ যদি দূরবীন দিয়ে চাঁদ দেখে তবে কি তা জায়েয? কখনো কখনো অনিশ্চিত ও উড়ো খবর পাওয়া যায় যে, চাঁদ দেখা গেছে সে ক্ষেত্রে কি করব? যদি এমন হয় যে, আমি চাঁদ দেখলাম। কিন্তু আমার সাক্ষ্য সরকার গ্রহণ করল না। এমতাবস্থায় কী করব? সিয়াম কাদের উপর ফরয অনুচ্ছেদ ২ টি কাদের উপর সিয়াম পালন ফরয? কী অবস্থায় কাদের উপর সিয়াম ফরয নয়? সিয়াম অবস্থায় যা অবশ্য করণীয় অনুচ্ছেদ ১ টি সিয়াম পালনের ক্ষেত্রে কী কী কাজ ও আমল অত্যাবশ্যক? সিয়ামের সুন্নাত আদব অনুচ্ছেদ ১ টি প্রত্যেক ইবাদতেরই কিছু আদব কায়দা ও শিষ্টাচার রয়েছে, সিয়ামের আদবগুলো কী কী? সিয়ামের নিয়ত : সময় ও পদ্ধতি অনুচ্ছেদ ৬ টি ফরয রোযার নিয়ত কখন করতে হয়? নিয়ত কাকে বলে? এটা কীভাবে করব? কেউ কেউ নিয়ত করার বদলে নিয়ত পড়েন এবং আরবীতে نَوَيْتُ أَنْ أَصُوْمَ غَدًا ‘‘নাওয়াইতু আন’’ বলে আরবীতে নিয়ত শুরু করেন এমন করলে কি সওয়াব বেশি হবে? ‘‘নাওয়াইতু আন’’ বলে নিয়ত শুরু করার প্রচলনটা কীভাবে হল? রাতের সাহরী খাওয়া নিয়তের জন্য যথেষ্ট হবে কি? পুরো রমাযানের জন্য শুরুর দিন একবার নিয়ত করে নিলে কি তা যথেষ্ট হবে? সিয়ামের প্রকারভেদ অনুচ্ছেদ ১ টি সিয়াম কত প্রকার ও কী কী? সিয়াম ভঙ্গ হওয়ার কারণসমূহ অনুচ্ছেদ ১৯ টি কী কী কারণে সিয়াম ভঙ্গ হয়ে যায়? কেউ যদি ভুলক্রমে কিছু খেয়ে ফেলে তবে কি তার সিয়াম ভঙ্গ হয়ে যাবে? অযু গোসলের সময় অসাবধানতা বশতঃ হঠাৎ করে কিছু পানি গলায় ঢুকে গেলে বা জোরপূর্বক খাওয়ানো হলে সিয়াম কি ভঙ্গ হয়ে যাবে? সিয়াম অবস্থায় কেউ যদি ইচ্ছাকৃত বমি করে তাহলে তাকে কী করতে হবে? রমযান মাসে দিনের বেলায় স্বেচ্ছায় স্বজ্ঞানে স্বামী-স্ত্রীর মিলন হলে এর হুকুম কি? উপরোক্ত ঘটনায় কারণে কে কাযা করবে? স্বামী নাকি স্ত্রী? রমযান মাসে রাতের বেলায় কি স্ত্রী সহবাস করা যাবে? কোন প্রকার ইনজেকশানে সিয়াম ভঙ্গ হয়ে যাবে? দিবসের কোন অংশে রক্তস্রাব শুরু হলে সিয়াম ভঙ্গ হয়ে যাবে? মাসিক স্রাব শুরু হওয়া অনুভব করছে কিন্তু হয় নি। এ অবস্থায় কি সিয়াম ভঙ্গ হয়ে যাবে? ঋতুবতী মহিলারা কি কাযা করবে? ফাজরের ওয়াক্ত হয়নি মনে করে ফজর শুরু হওয়ার পর পানাহার করল, এমনিভাবে সূর্যাস্ত হয়ে গেছে মনে করে অস্ত যাওয়ার আগেই ইফতার করে ফেলল- এ সিয়াম কি শুদ্ধ হবে? সিয়াম অবস্থায় ভুলে পানাহার শুর করে দিল। এমন সময় হঠাৎ স্মরণ হল। এ ব্যক্তি কি করবে? কেউ যদি কোন সিয়ামকারীকে জবরদস্তি করে কোন কিছু খাওয়ায় তাহলে কি হবে? বিনা উযরে যে ইচ্ছা করে অতীতের সিয়াম ভঙ্গ করেছে তার কি করতে হবে? দিনের বেলায় ঘুমন্ত অবস্থায় যদি স্বপ্নদোষ হয়ে যায় তাহলে কি হবে? সিয়াম অবস্থায় থুথু কাশি গিলে ফেলা কেমন? নাক দিয়ে রক্ত পড়লে কিংবা দাঁত উঠলে অথবা আহত হয়ে রক্ত প্রবাহিত হলে কি সিয়ামের কোন ক্ষতি হবে? কোন রোযাদার ব্যক্তি তার সিয়াম ভঙ্গ করার নিয়ত করল কিন্তু সে তখনো কোন খানাপিনা খায়নি- তার সিয়াম কি ঠিক আছে, নাকি ভেঙ্গে গেছে? যেসব কারণে সওম মাকরূহ হয়ে যায় অনুচ্ছেদ ৩ টি সওম মাকরূহ হওয়ার অর্থ কি? কী কী কারণে সিয়াম মাকরূহ হয়? বিনা প্রয়োজনে যদি কোন মহিলা স্বীয় বাচ্চাকে রোযা অবস্থায় খাদ্য চিবিয়ে দেয় তবে তার হুকুম কী? সিয়াম অবস্থায় যেসব কাজ মুবাহ অর্থাৎ বৈধ অনুচ্ছেদ ৬ টি কী কী কাজ করলে সিয়াম ভঙ্গ হয় না? অথবা সিয়াম অবস্থায় কী কী কাজ বৈধ? কিডনী পরিষ্কার করলে, চোখে বা কানে ড্রপ দিলে, দাঁত উঠলে, ক্ষতস্থানে ব্যান্ডেজ লাগালে, রক্ত পরীক্ষা করার জন্য রক্ত নিলে রোযা কি ভেঙ্গে যাবে বা ক্ষতি হবে? যদি সুবহে সাদেক হয়ে যায় বা ফজরের আযান শুরু হয়ে যায় আর মুখে খাবার বা পানীয় থাকে তাহলে কি করবে? রোযাদার যদি আহত হয় বা নাক দিয়ে রক্ত ঝরে কিংবা কোন কারণে অনিচ্ছাকৃতভাবে গলায় পানি বা তেল ঢুকে যায় তাহলে রোযার কি হবে? চোখের অশ্রু যদি গলায় প্রবেশ করে তাহলে কি রোযা ভেঙ্গে যাবে? রোযাদার ব্যক্তি যদি আতরের গন্ধ, চন্দন কাঠ বা আগরবাতির ঘ্রাণ শুঁকে তাহলে কি হবে? সিয়ামের কাযা ও কাফফারার বিধান অনুচ্ছেদ ১০ টি সিয়ামের কাযা ও কাফফারা কী জিনিস? এগুলো কীভাবে আদায় করতে হয়? যে ব্যক্তি বিনা উযরে বিনা করণে অতীতে সিয়াম ভঙ্গ করেছে সে কীভাবে কাযা ও কাফফারা আদায় করবে? দিনের বেলায় সহবাসের কারণে সিয়াম ভঙ্গ হলে তার কি করতে হবে। একটি রোযা ভাঙ্গার কারণে ষাটটি রোযা রাখা, তাও আবার বিরতীহীনভাবে এভাবে আদায় করতে যদি কেউ অক্ষম বা অপারগ হয় তাহলে কি করবে? কাউকে চুমু দেয়ার কারণে বা স্ত্রী বা কোন মেয়ের গা স্পর্শ হওয়ার কারণে অনচ্ছিকৃতভাবে বীর্যপাত হয়ে গেলে ঐ দিনের সিয়াম কীভাবে কাযা করবে? কোন্ কারণে রোযা ভঙ্গ হলে কাযা ও কাফ্ফারা উভয়ই ওয়াজিব হয়? ইচ্ছাকৃতভাবে পানাহার করলে কী করবে, কাযা না কাফফারা? কোন কোন কারণে রোযা ভঙ্গ হলে শুধু কাযা ওয়াজিব হয়? রমযানের রোযা কাযা করার হুকুম কি? কেউ যদি একাধিক রোযা ভঙ্গ করে তবে সে কি এগুলো একাধারে কাযা করবে? এক রমযানের কাযা আদায়ের পূর্বে অন্য রমযান আগমন করলে কী করবে? অসুস্থ ব্যক্তির সিয়াম অনুচ্ছেদ ১৩ টি কী পরিমাণ অসুস্থ হলে সিয়াম ভঙ্গ করতে হবে? অসুস্থ হলেও সিয়াম পালনে খুব কষ্ট হচ্ছে না এবং কোনরূপ ক্ষতির আশঙ্কাও নেই এমতাবস্থায় কি করব? সিয়াম পালনে কষ্ট হচ্ছে কিন্তু রোগীর কোন ক্ষতির আশঙ্কা নেই- কি করবে? সিয়াম পালনে রোগীর কষ্ট হচ্ছে, তবু সে সিয়াম ভঙ্গ করতে রাজী নয়- এর হুকুম কি? সিয়াম পালনে রোগ বৃদ্ধি পাবে এবং ক্ষতিও হবে। তবু পরহেজগারী মনে করে সিয়াম পালন করে যাওয়া কেমন? কোন সুস্থ ব্যক্তি দিনের কোন অংশে অসুস্থ হয়ে পড়ল, বাকী অংশ সিয়াম পালনে কষ্ট হচ্ছে- কী করবে? কোন রোগী দিনের মধ্যভাগে সুস্থ হয়ে গেল, সেকি দিনের বাকী অংশ সিয়াম পালন করবে? ক্ষুধা ও পিপাসায় কাতর হয়ে পড়ে এবং জীবন নাশের আশঙ্কা করে তবে কী করবে? রোযা অবস্থায় অজ্ঞান হয়ে গেলে কী করবে? কোন রোগী সুস্থ হওয়ার পর কাযা আদায় করার আগেই মৃত্যুবরণ করল তার জন্য কী করতে হবে? কোন অসুস্থ ব্যক্তির কাযা রোযা সুস্থ হওয়ার পর কাযা না করে শুধু ফিদইয়া দিলে কি চলবে? কঠিন শারীরিক পরিশ্রম যারা করে তারা কি রমযানের ফরয রোযা ভাঙ্গতে পারবে? পরীক্ষার্থী ছাত্র-ছাত্রীরা অধ্যয়নের চাপের কারণে রোযা কি ভাঙ্গতে পারবে? অতি বৃদ্ধ, অচল ও চিররোগীদের সিয়াম অনুচ্ছেদ ৪ টি খুবই বৃদ্ধ লোক। সিয়াম পালন তার জন্য খুবই কষ্টকর। তার সিয়াম পালনের কি হুকুম? এমন চিররোগী যার আরোগ্য লাভের সম্ভাবনা নেই। যেমন- ক্যান্সার বা এ ধরণের কোন রোগ। এসব লোকের সিয়াম পালনের হুকুম কি? এমন বৃদ্ধলোক যে ভাল মন্দ পার্থক্য করতে পারে না। বিবেক বুদ্ধি লোপ পেয়েছে। তার সিয়ামের হুকুম কি? পূর্বোক্ত বৃদ্ধলোকের যদি কখনো কখনো হুশ ফিরে আসে, জ্ঞান ফিরে পায় তাহলে কি করবে? মুসাফিরের সিয়াম অনুচ্ছেদ ১৬ টি মুসাফির কাকে বলে? কমপক্ষে কী পরিমাণ দূরত্ব অতিক্রম করলে অর্থাৎ সফর করলে একজন ভ্রমণকারী বা যাত্রীকে মুসাফির বলা যায়? মুসাফির অবস্থায় সিয়াম ও সালাতের নিয়ম কি? সফরে থাকা অবস্থায় সিয়াম ভঙ্গ করা জায়েয এ নিয়তে রোযার মাসে সফরে বের হওয়া কি বৈধ হবে? কোন ধরণের ভ্রমণে সিয়াম ভঙ্গ করা যাবে? মুসাফিরের রোযা ভঙ্গ করলে পরবর্তীকালে তা কাযা করবে কি না? সফরে সিয়াম ভঙ্গ করা কি বাধ্যতামূলক নাকি ইচ্ছাধীন? সফরে সিয়াম পালন করা উত্তম না ভঙ্গ করা উত্তম। সফরে সবল ও দুর্বল ব্যক্তির সিয়ামের হুকুম কি? সফর যদি বাড়ীতে থাকার মতই আরামদায়ক হয় তাহলে সিয়াম কি করবে? মুসাফির কখন তার সিয়াম ভঙ্গ করবে? সূর্যাস্তের পর ইফতারী করে বিমানে আকাশে উঠে দেখল সূর্য দেখা যায়- সে কি করবে? এক ব্যক্তি মুকীম অবস্থায় রোযা রাখল। অতঃপর দিনের বেলায় সফর শুরু করল। সে কি করবে? সফরই যাদের চাকুরী যেমন ডাক বিভাগের কর্মচারী; বাস ও ট্রেনের ড্রাইভার, বিমানের পাইলট ও জাহাজের নাবিক তারা কি করবে? কেউ যদি এক দেশে রোযা রাখে অতঃপর ভিন্ন রাষ্ট্রে চলে যায় তাহলে রোযা শুরু বা শেষ কোন দেশের সময় অনুযায়ী করবে? অসুস্থ ব্যক্তি সুস্থ হয়ে এবং মুসাফির মুকীম হয়ে কিছুদিন অবস্থান করার পর মারা গেলে তাদের কাযার ফায়সালা কি? গর্ভবতী ও স্তন্যদানকারী নারীদের সিয়াম অনুচ্ছেদ ৫ টি গর্ভবতী ও স্তন্যদানকারী নারীরা কি সিয়াম পালন করবে নাকি ভঙ্গ করবে? গর্ভবতী ও স্তন্যদানকারিনী মহিলার ভাঙ্গা রোযার বদলে কি শুধু কাযা করবে নাকি ফিদইয়া দিবে? ফিদইয়ার পরিমাণ কত? গর্ভবতী নারীর পক্ষ থেকে কে ফিদইয়া দেবে? গর্ভবতী ও দুগ্ধদানকারী নারীরা কাযা রোযা কখন করবে? ঋতুবতী মহিলাদের সিয়াম অনুচ্ছেদ ১৮ টি ঋতুবতী মহিলা বলতে কী বুঝায়? এ দু’ অবস্থায় মেয়েদের কী কী কাজ ও ইবাদত নিষিদ্ধ? হায়েয ও নিফাস থেকে পবিত্র হওয়ার পর সালাত, রোযা কীভাবে কাযা করবে? যদি কোন সিয়াম পালনকারী নারীর সূর্যাস্তের সামান্য কিছু পূর্বে মাসিক স্রাব শুরু হয়ে যায় তাহলে কি করবে? যদি কোন মেয়ে রমযান মাসের দিনের বেলায় কোন অংশে হায়েয বা নিফাস থেকে পবিত্র হয় তাহলে দিবসের বাকী অংশে কি রোযা রাখবে? যদি ফজরের সামান্য আগে হায়েয বা নিফাস থেকে পবিত্র হয় তাহলে কি করবে? ফজরের পূর্বক্ষণে হায়েয বা নিফাস থেকে পবিত্র হল। কিন্তু গোসল করার সময় পেল না। এ অবস্থায় কি রোযা রাখার নিয়ত করবে? অভ্যাসের কারণে যে মহিলা জানে যে, আগামী কাল থেকে তার মাসিক শুরু হবে সে রোযার নিয়ত করবে কি করবে না? সন্তান প্রসবের কারণে নিফাসওয়ালী মহিলা যদি ৪০ দিনের পূর্বেই পাক হয়ে যায় তাহলে কী করবে? নিফাসওয়ালী নারীর যদি ৪০ দিন পার হওয়ার পরও রক্ত বন্ধ না হয় তাহলে কি করবে? যদি কোন নারী মনে করে যে, টেবলেট খেয়ে হায়েয বা মাসিক বন্ধ করে ফরয রোযা চালিয়ে যাবে। এ কাজটির হুকুম কী? হায়েয ও নিফাসওয়ালী মহিলা কীভাবে বুঝবে যে সে ঋতুস্রাব থেকে পবিত্র হয়ে গেছে? যে মহিলা বালেগ হওয়ার পর কোন রোযা রাখে নি। সে এখন লজ্জিত, অনুতপ্ত ও তাওবাহ করতে চায়। সে কি করবে? যে মহিলা মাসিকের সময় না রাখা রোযাগুলো কাযা করেনি সে কি করবে? স্বামী উপস্থিত। স্ত্রী নফল বা সুন্নাত রোযা রাখতে চায়, কি করবে? স্ত্রী ফরয রোযা রাখছে। এমতাবস্থায় স্বামীকে সহবাসের অনুমতি দিল। এর হুকুম কী? স্রাবের কারণে কাযা সিয়াম কোন উযর বা যুক্তিসঙ্গত কারণ ছাড়া পরবর্তী রমযান চলে আসার আগে কাযা করতে পারল না। এ অবস্থায় কি করবে? কাযা ও কাফফারা উভয় ওয়াজিব। সেক্ষেত্রে কাযা কোনটি ও কাফফারা কোনটি? তারাবীহর সালাত অনুচ্ছেদ ১০ টি তারাবীহ অর্থ কি? এ সালাতকে কেন তারাবীহ নামকরণ করা হল? রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম’র তারাবীহর সালাত কী ধরণের বৈশিষ্টমন্ডিত ছিল? তারাবীহ সর্বপ্রথম কোথায় চালু হয়। রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কি নিয়মিত প্রত্যহ জামা‘আতের সাথে তারাবীহ পড়তেন? তারাবীহর সালাত কত রাক‘আত? তারাবীহর সংখ্যার মতবিরোধের মধ্যে কোনটি সর্বাধিক গ্রহণযোগ্য? তারাবীহ ও তাহাজ্জুদের ফযীলত জানতে চাই। তারাবীহ সালাতের জামাআতে নারীদের শরীক হওয়া কি জায়েয? নারীরা মাসজিদে গেলে তাদের চালচলন ও পোশাক আশাক কী ধরনের হওয়া উচিত? জামাআতে সালাত আদায় করলে নারীদের কোথায় দাঁড়ানো উত্তম? বিতরের সালাত অনুচ্ছেদ ৩ টি বিতরের সালাত কত রাকআত? বিতরের সালাতে কি একবার নাকি দু’বার সালাম ফিরাব? বিতরের সালাতের আগেই জামাত ছেড়ে যাওয়া কি জায়েয? লাইলাতুল কদর অনুচ্ছেদ ৬ টি লাইলাতুল কদরের মর্যাদা, বৈশিষ্ট্য ও ফযীলাত জানতে চাই। কোন রাতটি লাইলাতুল কদর? কেন এ রাতকে অস্পষ্ট করে গোপন রাখা হয়েছে। এটা স্পষ্ট করে নির্দিষ্ট করে বলা হয় নি কেন? যে রাতটি লাইলাতুল কদর হবে সেটি বুঝার কি কোন আলামত আছে? রমাযানের শেষ দশ রাতে রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কী ধরণের ইবাদত করতেন? মহিমান্বিত লাইলাতুল কদরে আমরা কী কী ইবাদত করতে পারি? ই‘তিকাফ অনুচ্ছেদ ১৬ টি ই‘তিকাফ কী? এর হুকুম কী? ই‘তিকাফের উদ্দেশ্য কী? ই‘তিকাফের জন্য কী কী শর্ত পূরণ আবশ্যক? ই‘তিকাফের রুকন কয়টি ও কী কী? মেয়েরা কি নিজ বাসগৃহে ই‘তিকাফ করতে পারবে? ই‘তিকাফ অবস্থায় কী কী কাজ নিষিদ্ধ? বিশেষ প্রয়োজনে ই‘তিকাফ অবস্থায় মাসজিদ থেকে বের হতে পারবে কি? কী কী কারণে ই‘তিকাফ ভঙ্গ হয়ে যায়? ই‘তিকাফ অবস্থায় কী কী কাজ করা বৈধ অর্থাৎ মুবাহ? ই‘তিকাফকারীর দায়িত্ব ও করণীয় কাজ কী কী? এবং তাঁর কী ধরনের ইবাদত করা উচিত? ই‘তিকাফ শুধুই রমযান মাসে? নাকি অন্য সময়ও করা যায়? ই‘তিকাফের জন্য কোনটি উত্তম সময়? সর্বনিম্ন কী পরিমাণ সময় ই‘তিকাফ করা যায়? ই‘তিকাফ কখন শুরু ও শেষ করব? রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কতবার ই‘তিকাফ করেছেন? ই‘তিকাফ কত প্রকার ও কী কী? ফিত্‌রা অনুচ্ছেদ ১৫ টি ফিত্‌রা কী জিনিস? ফিত্‌রা প্রদানের হুকুম কী? কোন ব্যক্তির উপর ফিত্‌রা দেয়া ওয়াজিব? কী পরিমাণ সম্পদ থাকলে ফিতরা দেয়া ফরয হয়? যে দরিদ্র ব্যক্তি ফিত্‌রা গ্রহণ করবে সেও কি তার নিজের ও পরিবারের সদস্যদের ফিত্‌রা প্রদান করবে? ফিত্‌রা কাকে দিব? একাধিক লোকের ফিত্‌রা কি একজন দরিদ্রকে দেয়া জায়েয? ফিত্‌রা হিসেবে কী ধরনের খাদ্যদ্রব্য দেয়ার বিধান আছে? প্রতি একজনের উপর কী পরিমাণ ফিত্‌রা দেয়া ফরয? খাদ্যদ্রব্য না দিয়ে এর বদলে টাকা পয়সা দিয়ে কি ফিত্‌রা দেয়া জায়েয হবে? ফিত্‌রা কোন সময় প্রদান করব? ফিত্‌রা প্রদানের ফরয সময় কখন শুরু হয়? যদি কোন ব্যক্তি ঈদের সালাত আদায়ের পর ফিত্‌রা প্রদান করে তাহলে কি তা আদায় হবে? ঈদের দিন সূর্যোদয়ের আগে কোন শিশু জন্ম গ্রহণ করলে তার কি কোন ফিত্‌রা দেয়া লাগবে? ঈদের সালাতের সময় কখন শুরু ও শেষ হয়। ঈদ: সংজ্ঞা, প্রচলন ও হুকুম আহকাম অনুচ্ছেদ ৫১ টি ঈদ অর্থ কী? ঈদ কোন হিজরীতে শুরু হয়? ঈদের প্রচলন কীভাবে শুরু হয়? ঈদের সালাতের হুকুম কী? ঈদের সালাতের আগে আমাদের করণীয় কী কী? ঈদের দিন রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কী ধরনের পোশাক পরতেন? কোন পুরুষ লোক যদি রেশমী কাপড় পরে তাহলে এর হুকুম কি? ঈদের দিন খাবার গ্রহণ বিষয়ে রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম’র সুন্নাত কী ছিল? ঈদগাহে কখন যাওয়া উত্তম? ঈদের সালাতে যাওয়া-আসায় রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম দু’টি পথ ব্যবহার করতেন। একপথে যেতেন, ভিন্ন আর এক পথে বাড়ী ফিরতেন। এর হিকমত কী? ঈদের দিন রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম যে তাকবীর পড়তে পড়তে যেতেন সেটি কোন তাকবীর? তাকবীর কীভাবে পড়ব? তাকবীর পাঠ কখন শুরু ও শেষ করব? মেয়েদের কি ঈদের সালাতে যাওয়া জায়েয আছে? ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আযহা- এর কোনটি আওয়াল ওয়াক্তে (অর্থাৎ প্রথম ওয়াক্তে) পড়ব? রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ঈদুল ফিতরের সালাত ঈদুল আযহার সালাতের চেয়ে একটু দেরী করে পড়তেন কেন? ঈদের সালাত কোথায় আদায় করা সুন্নাত? নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কোথায় ঈদের সালাত আদায় করতেন? বৃষ্টি, ঝড়-তুফান ও নিরাপত্তহীনতা ইত্যাদি অবস্থায় মাসজিদে ঈদের সালাত আদায় করা কি জায়েয হবে? ঈদের সালাতে কোন আযান ও ইকামাত নেই এ বিষয়ে দলীল আছে কি? ঈদের সালাত কত রাকআত? এ দু’ রাক‘আত ঈদের সালাতের আগে পরে কি রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কোন নফল সুন্নাত সালাত পড়তেন? ঈদের সালাতে দাঁড়িয়ে তাকবীরে তাহরীমা বাধার পর ‘‘আল্লাহু আকবার বলে অতিরিক্ত যে কিছু তাকবীর দেয়া হয় এর মোট সংখ্যা কত? যারা অতিরিক্ত ৬ তাকবীরে ঈদের সালাত আদায় করেন তাদের দলীল কি? প্রথম রাকআতে অতিরিক্ত ৭ এবং দ্বিতীয় রাকআতে অতিরিক্ত ৫ তাকবীরে (অর্থাৎ অতিরিক্ত মোট ১২ তাকবীরে) যারা ঈদের সালাত আদায় করে থাকেন তাদের দলীল কি? অতিরিক্ত ৬ তাকবীর ও ১২ তাকবীরের মধ্যে দলীল হিসেবে কোনটি বেশি শক্তিশালী? আমরা যারা হানাফী মাযহাবের অনুসারী তারা কি অতিরিক্ত ১২ তাকবীরের মাসআলাটি আমল করতে পারি? আল্লাহু আকবার বলে যে অতিরিক্ত তাকবীর দেয়া হয় এর হুকুম কি? বাড়তি তাকবীর বলার সময় প্রত্যেক তাকবীরেই কি হাত উঠাতে হবে? প্রত্যেক তাকবীর বলার সময় কোন পর্যন্ত হাত তুলতে হয়? অতিরিক্ত তাকবীরগুলো কখন বলতে হয়? অতিরিক্ত তাকবীর বলার ক্ষেত্রে প্রতি দু’ তাকবীরের মাঝখানে রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কি কোন কিছু পড়তেন? অতিরিক্ত তাকবীর বলার সময় হাত বাঁধবে নাকি ছেড়ে দেবে? শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত কীভাবে ঈদের সালাত আদায় করব? সলাতুল ঈদে সূরা ফাতিহা পড়ার পর কোন সূরা পড়া মুসতাহাব? ঈদের খুৎবা কখন দিতে হয়? ঈদের খুৎবা শ্রবণ ফরয, ওয়াজিব নাকি মুস্তাহাব? কি শব্দ দ্বারা রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম খুৎবা শুরু করতেন? ঈদের খুৎবায় রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কী বলতেন? খুৎবা কি একটি ধরাবাধা গদ? যা ইমাম সাহেব ঈদগাহে পড়বেন? খুৎবা কি বাংলায় দেয়া জায়েয হবে? ঈদের খুৎবা শেষে দু‘আ কি ইমাম সাহেবের সাথে জামাতবদ্ধভাবে নাকি একাকী-কোনটি সুন্নাত তরীকা? ঈদের জামাআত না পেলে কি করব? কাযা আদায় করতে হবে কি? ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়ের নির্দিষ্ট কোন পরিভাষা আছে কি? ঈদের সালাত থেকে বাড়ী ফিরে রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম প্রথমে কোন কাজটি করতেন? পবিত্র ঈদের কল্যাণ হাসিলের জন্য কী ধরণের কাজ থেকে সতর্ক থাকা উচিত? কারো পোশাক যদি অন্য ধর্মীয় লোকদের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ হয়, তাহলে এর হুকুম কি? পোশাক-আশাক, চুলটাকা ও চালচলনে মেয়েরা ছেলেদের এবং ছেলেরা মেয়েদের অনুসরণ করলে এর হুকুম কি? যেসব মেয়ে বেপর্দা অবস্থায় দোকানপাট ও রাস্তাঘাটে বের হয় তাদের সম্পর্কে রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কি বলেছেন? দেবরেরা কি ভাবীর সাথে দেখা করতে পারবে? ইসলামে গান বাদ্যের হুকুম কি? যাতে ঈদের সময় মানুষকে আরো বেশি লিপ্ত হতে দেখা যায়? নফল সিয়াম অনুচ্ছেদ ২৬ টি সুন্নাত ও নফল সিয়ামের মর্যাদা কেমন? রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কি নিয়মিত সুন্নাত ও নফল সিয়াম পালন করতেন? নফল সিয়াম কোন মাসে রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বেশি করতেন? রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তার জীবনে কী কী সুন্নাত ও নফল সিয়াম পালন করেছেন? শাওয়াল মাসের ৬টি সিয়াম পালনের ফযীলত জানতে চাই। কোন উযরবশত যদি ফরয রোযা কাযা হয়ে যায় তাহলে কাযা রোযা আগে রাখবে নাকি সুন্নাতের ৬ রোযা আগে রাখবে? শাওয়ালের ৬টি রোযা কি একাধারে রাখব, নাকি মাঝে বিরতি দেয়া যাবে? শাওয়ালে ৬টি রোযা উক্ত মাসে আদায় করতে পারে নি। পরের মাসে এগুলো কাযা করতে পারবে কি? যিলহাজ্জ মাসের প্রথম দশকের দিনগুলোতে সিয়াম পালন ও অন্যান্য ইবাদতের ফযীলত জানতে চাই। আরাফার দিন কোনটি? আরাফার দিনে সওম পালনকারীকে আল্লাহ কী পুরস্কার দেবেন? যারা আরাফাতের মাঠে হাজ্জ পালনরত থাকবে তারাও কি এ সওম পালন করবে? মুহাররম মাসের সওমের ফযীলত কি? আশুরার দিন কোনটি? আশুরার দিনের সওমের ফযীলত? আশুরার রোযা মুহাররমের ১০ তারিখে শুধু একদিন রাখলেই কি যথেষ্ট হবে? আশুরার সওম পালনের এত সাওয়াব কি ইমাম হুসাইন রাদিয়াল্লাহু আনহু’র শহীদ হওয়ার কারণে? বর্ণিত এ ৩ দিনের সিয়াম পালনের গুরুত্ব সম্পর্কে জানতে চাই। এ ৩ দিনের সিয়াম পালনের মধ্যে রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কী কী ফযীলত বর্ণনা করেছেন? প্রতি চন্দ্র মাসের কোন ৩ দিন এ সিয়াম পালন করব তা কি রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম নির্ধারিত করে দিয়েছেন? এ ৩ দিনের সিয়াম পালন তো সুন্নাত। কাজেই রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এটাকে কতটুকু গুরুত্ব দিতেন? সপ্তাহের সোম ও বৃহস্পতিবার- এ দু’দিন সিয়াম পালন করা সুন্নাত। কিন্তু প্রশ্ন হল রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কেন এ দু’দিন রোযা রাখতে পছন্দ করতেন? শাবান মাসে রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কি পরিমাণ সিয়াম পালন করতেন? আল্লাহর নাবী দাঊদ আলাইহিস সালাম কীভাবে সওম পালন করতেন? বিবাহে অসমর্থ যুবকদের উদ্দেশ্যে মহানাবীর সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম উপদেশ শুনতে চাই। কোন ব্যক্তি যদি সুন্নাত ও নফল সিয়াম বিনা কারণে ভঙ্গ করে তবে সেটা কি আবার কাযা করতে হবে?